চলুন দেখে আসি চুঁচুড়া শহর এর মারকুন্ডু গলি সার্বজনীন পূজা সমিতির ছোট্ট পূজো টির এবারের থিম কি ?

নবণীতা মন্ডল

এই বছর চুয়াল্লিশ বছর এর পা দিল এই পূজা, করোনা মহামারী পরিস্থিতি তে সম্পন্ন নিয়ম মেনেই পালন করা হচ্ছে, শারদীয়া মায়ের আহ্বান লড়াই করেছে নিজেদের রুজি রোজগার এর জন্য তারা ই তাদের সকলেই কৈশর যৌবন এ পা রেখেছে, বা পরিপূর্ণ যুবক সকলের অক্লান্ত পরিশ্রম করে তৈরি করেছে বাঙালি বনেদিয়ানা এবং রাজবাড়ি প্রতিকৃতি, এই পূজোর বিশেষত্ব হল করোনা মহামারী পরিস্থিতি কোন চাঁদা কারুর কাছে না নিয়ে, মারকুন্ডু গলি ক্লাবের সদস্য রা নিজেদের মতোন করে তৈরি করেছে এই মন্ডপ টি, বর্তমান যুগের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ফাঁদে শিশু থেকে আবাল বৃদ্ধ বনিতা সকলেই ভুলতে বসেছেন তাদের ঐতিহ্য শৈশব ঠাকুমা, দিদিমার গল্প সেই মান্ধাতার আমলের রাজবাড়ি তার পারিবারিক ও সামাজিক পরিবেশ এলাকায় একটি পূজো এবং তাকে ঘিরে উৎসবের আবেগ, সব টাই তুলে ধরেছেন এখানে কর্ণধার ও ক্লাবের ছেলে রা করোনা মাঝে তাদের রুজি রোজগার এর জন্য লড়াই এর মাঝে মাঝে গোটা রাজবাড়ি টাকে কোন অদৃশ্য শক্তি বলে রূপ দিয়েছে, যার মূল উদ্যোক্তা সন্দীপ কুমার মালিয়া, তার ই অনুপ্রেরণা ও মস্তিষ্ক প্রসূত এক রাজবাড়ি যা বলতে গেলে এক কথায় বলা যায়, সবে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ, মায়ের আগমন বার্তা বর্তমান প্রজন্ম কে শুধু না পাড়ার ও এলাকাবাসী কেউ উপহার দিয়েছেন ।