প্রেম দিবসের দিনে উলুবেড়িয়ায় ভিআইপি বিয়ে, পাত্র আইএএস ও পাত্রী আইপিএস

কল্যাণ অধিকারী, হাওড়া

প্রেম দিবসের দিনে আবদ্ধ হলেন ওঁরা। বছরের প্রতিটি দিন কর্মব্যস্ত হয়ে কাটাতে হয়। সময়ের থেকেও দ্রুত এগিয়ে নিয়ে যেতে হয়ে জীবন। তবুও বসন্তের শুরুতেই বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হলেন উলুবেড়িয়ার মহকুমা শাসক তুষার সিংলা।

পাত্রীও যে সে পাত্রী নয়। তিনিও আইপিএস অফিসার। নাম নভজ্যোৎ সামিয়ালের। মহুকুমা শাসকের বাংলোয় শুক্রবার প্রেম দিবসের দিনে শুরু হল নতুন জীবন। পাত্রীর পরনে লাল রঙের ভাগলপুরি শিল্ক জামদানি শাড়ি এবং ম্যাচিং করা ব্লাউজ। পাত্রের পরনে সাদা জামা সঙ্গে কালো কোট এবং চকলেট রঙের টাই। কাজের ফাঁকে ছুটি পাওয়ার জো নেই আর তাই চার হাত এক হলো নিজের দফতরে বিয়ের রেজিস্ট্রি পেপারে সই করে। সামাজিক অনুষ্ঠানে সকলকে আমন্ত্রণ জানাবেন।

পাত্র-পাত্রী দু’জনেই পাঞ্জাবের বাসিন্দা। পরিচয় পরিণয়ে পরিণত হতে সময় নেয়নি। তারপর সিদ্ধান্ত বিয়ের। কিন্তু বিয়ের জন্য ছুটি নেওয়া অসম্ভব। সেখান থেকেই সিদ্ধান্ত বিয়ে হবে পাত্র তুষার সিংলার দফতরে। সেইমতন লাল শাড়ি গলায় ভারী নেকলেস পড়ে আইপিএস পাত্রী আসেন। একত্রে রেজিস্ট্রি সারেন। তারপর সিঁদুর পড়িয়ে বিয়ে। সম্পূর্ণটা হয়েছে দফতরে। বিয়ে উপলক্ষে দুই পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। প্রেম দিবসের দিন ভিআইপি বিয়ের সাক্ষী থাকল উলুবেড়িয়া। বিহার ও পশ্চিমবঙ্গ দুই রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ঝঞ্জাট মিটলে বিহারে পোস্টিং স্ত্রীকে নিয়ে আসবেন এখানে এমনটাই জানা গেছে।