সরজমিনে রেশন ক্ষতিয়ে দেখলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী

রবীন্দ্রনাথ বর্মন, কোচবিহার, ২ মে : করোনা মোকাবিলায় লকডাউনের জেরে মানুষ ঘরবন্দি। কাজ বন্ধ থাকায় গরিব মানুষেরা ভবিষ্যতের রুজি রোজগারের চিন্তায় দিশেহারা। যথেষ্ট টাকা পয়সা হাতে না-থাকায় অনেকেই প্রয়োজনীয় খাবার বা আনাজ কিনতে পারছেন না। তাই দ্বিতীয় মাসে উপভোক্তাদের রেশনে জিনিসপত্র দেওয়া শুরু করেছে সরকার।


সাধারণ মানুষ ঠিকঠাক ভাবে রেশন দোকানের পণ্য পাছে কিনা নিজের নাটাবাড়ী বিধানসভা এলাকায় সরজমিনে খতিয়ে দেখলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি সাধারণ মানুষকে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য নিতে উপদেশ দেন। পাশাপাশি তিনি ওজন কাটাও দেখেন রেশন দোকানগুলির।

১লা মে সকাল থেকেই জেলার প্রায় সর্বত্র রেশন দোকানে প্রচুর মানুষ লাইন করে। ফলে ভিড় ঠেকাতে কোথায় আবার রেশন দোকানে পুলিশ এসে লাইনে দাঁড়ানো মানুষকে নির্দিষ্ট দূরত্বে দাঁড়ানোর ব্যবস্থা করে। গতকাল থেকে রেশন দেওয়ার কাজ শুরু হয়ে গেছে নাটাবাড়ি বিধানসভার বিভিন্ন জায়গায়। ছোটখাটো ঘটনার কথা শোনা গেলেও এই বিধান সভার সে রকম কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর নেই রেশন নিয়ে। অনেকে আবার লাইনে দাঁড়িয়ে না থেকে রেশনের সামগ্রী নেওয়ার ব্যাগ দিয়ে দিয়ে লাইন দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে বিভিন্ন রেশন দোকানের সামনে। সেই মতে রেশনের মালিক দোকানের সামনে গোল দাগ কেটে দিয়েছে। গ্রাহকদের রেশন নিতে আসা এই অভিনব এবং ব্যাগের লাইন দেখে অনেকেই অবাক হয় এদিন।