বিখ্যাত কণ্ঠ শিল্পী কিশোর কুমারের জন্মদিন

প্রসেনজিৎ বিশ্বাস, কলকাতা :
কিশোর কুমার যার প্রকৃত নাম আভাস কুমার গঙ্গোপাধ্যায়।১৯২৯ সালে মধ্যপ্রদেশের খন্দওয়াতে আজকের দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম কুঞ্জলাল গাঙ্গুলী এবং মাতা গৌরী দেবী।
তিনি ছিলেন একজন বিখ্যাত ভারতীয় গায়ক, গীতিকার, সুরকার, অভিনেতা, চলচ্চিত্র, পরিচালক, চিত্রনাট্যকার এবং রেকর্ড প্রযোজক ছিলেন। তার চার অদ্ভুত কাহিনী আছে তিনি ৪ আগস্ট ৪ টার সময় জন্মগ্রহণ করেন, এবং পরিবারের চতুর্থ সন্তান। তিনি জীবনে চারটি বিয়ে করেন।চলচ্চিত্র জীবনের চারটি বাংলা সিনেমাতে অভিনয় করেন।
তিনি বাংলা হিন্দি ছাড়াও মারাঠি,অসমীয়া, গুজরাটি, কন্নড়,ভোজপুরি, মালয়ালাম, উড়িষ্যা এবং উর্দু ভাষায় কিছু গান করেছিলেন।তার বাংলায় গাওয়া গানগুলো সর্বকালের গান ধূপদী হিসাবে বিবেচিত।
তিনি ৮ বার শ্রেষ্ঠ পুরুষ গায়কের ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার জিতেছেন এবং একই বিভাগে সর্বাধিক ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার বিজয়ের রেকর্ড করেছেন। তিনি মধ্যপ্রদেশ সরকার কর্তৃক লতা মঙ্গেশকর পুরস্কার পান এবং তার অবদানের জন্য কিশোর কুমার পুরস্কার চালু করা হয়।
তার অভিনীত কয়েকটি হাস্যরসাত্মক চিত্র গুলো হল বাপরে বাপ, চলতি কা নাম গাড়ি, হাফ টিকিট,পড়োশন, হাঙ্গামা, পেয়ার দিবানা ইত্যাদি। এছাড়াও অন্যান্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে দুর কা রাহি, নকরি, বন্দী ইত্যাদি।
হিন্দি গানের পাশাপাশি জনপ্রিয় বাংলা গান ও তিনি গেয়েছেন। উত্তম কুমারের উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে অমানুষ,আনন্দ আশ্রম,ওগো বধূ সুন্দরী, রাজকুমারী চলচ্চিত্রে তিনি গান করেছেন। বাংলা ছবি লুকোচুরিতে তিনি গায়ক এবং নায়কের ভূমিকায় নেন।সত্যজিৎ রায়ের চলচ্চিত্র চারুলতা এবং ঘরে-বাইরে তিনি রবীন্দ্রসঙ্গীত গেয়েছিলেন। বাংলা সিনেমা অমর সঙ্গী এবং গুরুদক্ষিণাতে তিনি প্লেব্যাক করেছেন ।শেষের দিকে তিনি হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের তত্ত্বাবধানে রবীন্দ্রসঙ্গীতের অ্যালবাম রেকর্ড করেছিলেন।
১৯৮৭ সালের ১৩ অক্টোবর ৫৮ বছর বয়সে হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে ভারতের এই মহান শিল্পী মহাপ্রয়ান করেন।