রাজ্য করোনা মোকাবিলায় প্রস্তুত: মুখ্যমন্ত্রী

দেবাশিস চট্টোপাধ্যায়

কলকাতা : নবান্নে করোনাভাইরাস নিয়ে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের পরে শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সাংবাদিকদের বলেন , করোনা নিয়ে অযথা আতঙ্কের কারণ নেই। সর্দি কাশি জ্বর এবং হাঁচি হলেই করোনা নয়। এ নিয়ে তিনি অযথা গুজব ছড়ানোর বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দেন। তিনি জানান যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্র একসঙ্গে কাজ করছে। এটা সারা বিশ্বের বিপদ এ দিনের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পূর্তমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, কলকাতার মেয়র তথা নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা, স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বাস্থ্যসচিব বিবেক কুমার, কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা সহ রাজ্য এবং কেন্দ্রের বিভিন্ন দপ্তরের আধিকারিকরা। এদিন মুখ্যমন্ত্রী সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে টোল ফ্রি নম্বর ঘোষণা করেনং১৮০০৩১৩৪৪৪২২২ এবং ০৩৩২৩৪১২৬০০। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন সারা রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ড করা হয়েছে। এছাড়াও ট্রেনিং প্রোগ্রাম করা হচ্ছে। তিনি বলেন জ্বর কাশি সর্দি শ্বাসকষ্ট হলে ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন। অযথা আতঙ্কিত হবেন না কাউকে আতঙ্কগ্রস্থ করে তুলবেন না। তিনি বলেন আমাদের রাজ্যে বেশ কয়েকটি সীমান্ত রয়েছে। ভুটানের জয়গাঁও, নেপালের সীমান্ত বাংলাদেশের সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় সীমান্ত এলাকা রয়েছে। সেসব জায়গায় স্ক্রিনিং বাড়ানো হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে ওষুধগুলো চীন থেকে আসতো সেগুলো বলতে গেলে এখন বন্ধ হয়ে গেছে। কেন্দ্রকে অনুরোধ করবো ওই ওষুধগুলো যাতে আনার ব্যবস্থা করা হয়। ওখানে ওষুধগুলো তৈরি হয়। এছাড়াও তিনি বলেন মাস্ক ব্যবহার করার কথা। এতেও যাতে কৃত্রিম অভাব সৃষ্টি না হয় তার দিকে নজর রাখতে বলা হয়েছে। হাত ধোয়ার অভ্যাস করতে হবে। শিশুদের প্রতি এ বিষয়ে বেশি যত্ন নিতে হবে। সরকার বিজ্ঞাপন দেবে আমরা সবাই মিলে যদি চেষ্টা করি তবে এই রোগকে প্রতিহত করতে পারব। কারো যদি জ্বর সর্দি বা শ্বাসকষ্ট হয় তবে তিনি নিজের বাড়িতে থেকে ১৪ দিন বিশ্রাম নিতে পারেন । মুখ্যমন্ত্রী পরামর্শ দেন বাইরে কোথাও হাঁচি বা কাশি শুরু হলে মুখে কিছু দিয়ে ঢেকে করবেন। একদম কিছু না পেলে নিজের হাত দিয়ে মুখ চাপা দিতে পারেন।
।।।।।