রাজ‍্যর বিভিন্ন বিদ্যুৎ কাষ্টমার কেয়ার সেন্টার ও ডিভিশনাল ম্যানেজারের কাছে বেশকিছু দাবী জানিয়ে স্বারকলিপি দিল সারা বাংলা বিদ্যুৎ গ্ৰাহক সমিতি

রবীন্দ্রনাথ বর্মন, কোচবিহার, ৬ মে : রাজ‍্যর বিভিন্ন বিদ্যুৎ কাষ্টমার কেয়ার সেন্টার ও ডিভিশনাল ম্যানেজারের কাছে বেশকিছু দাবী জানিয়ে স্মারক লিপি দিল সারা বাংলা বিদ্যুৎ গ্ৰাহক সমিতি। কোচবিহার জেলায় এই কর্মসূচি ঘোষণা করে এদিন ওই সমিতি।

নভেল করোনা ভাইরাসের যে অতিমারী সৃষ্টি হয়েছে, তাতে জেলার অনেক মানুষের পরিস্থিতি সংকটজনক। ক্ষুদ্র শিল্প, ক্ষুদ্র ব‍্যবসা ও কৃষিকাজের সাথে বিদ্যুৎ গ্ৰাহকের অবস্থা আর সোচনীয়। এছাড়া দিন আনা দিন খাওয়া শ্রমজীবী মানুষের অবস্থা বিপন্ন। কর্মচ‍্যুত অসংখ্য মানুষ আজ অর্ধাহারে – অনাহারে দিন যাপন করছে। তাদের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওই সমিতি। আর্থিক সংকটে ভুগছে রাজ‍্য সহ বিভিন্ন জেলা । ফলে সাধারণ মানুষের পক্ষে এই মুহূর্তে বিদ্যুৎ এর বিল মেটানো সম্ভব নয়। বুধবার জেলার বিভিন্ন বিদ্যুৎ কেয়ারে ডেপুটেশন দেওয়া হয় ডিভিশনাল ম্যানেজারকে। আজ জেলার পুন্ডিবাড়ি ও তুফানগঞ্জ সহ বিভিন্ন জায়গায় থাকা কেয়ারে স্বারক জমা দেন। ইলেকট্রনিক ছাড়াও মোট ছয়টি বিষয়ে এই স্মারকলিপি দিয়েছে সারা বাংলা বিদ্যুৎ গ্ৰাহক সমিতি।

ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার পালামেন্ট বন্ধ থাকা সত্ত্বেও লকডাউনের সুযোগ নিয়ে জনবিরোধী “বিদ্যুৎ আইন ২০০৩ (সংশোধনী) বিল ২০২০” একটি বিল এনেছে। আর এর উপর সংশোধনী মাত্র ২১ দিন সময় বরাদ্দ করে অনুমোদন নিতে চাইছে। কিন্তু এদিন ওই বিদ্যুৎ সমিতির পক্ষে ম্যানেজার কাছে এই জনবিরোধী বিলকে অগণতান্ত্রিক উপায়ে আইনে পরিণত করার তীব্র প্রতিবাদ জানায়।