দেশের সেবায় নিয়োজিত করতে চায় জেলার মেয়েদের মধ্যে টপার স্বস্তিকা

কল্যাণ অধিকারী ; দক্ষিন ২৪ পরগনা , ১৭ জুলাই, ২০২০

দেশের মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চায় স্বস্তিকা ভট্টাচার্য। দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার জয়নগর ইন্সটিটিউশন ফর গার্লস-এর ছাত্রী জেলায় মেয়েদের মধ্যে প্রথম। সারা রাজ্যে সার্বিক ভাবে ত্রয়োদশ স্থান করেছে। ভবিষ্যতে চিকিৎসক হিসাবে নিজেকে নিয়োজিত করতে চায় স্বস্তিকা ভট্টাচার্য।

সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতিতে আক্রান্তদের সেবায় নিরলস, অক্লান্ত চিকিৎসক থেকে নার্স। প্রতিটি মুহূর্তে জীবনের ঝুঁকি নিয়েও শ’য়ে শ’য়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের সুস্থ করে তুলতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। টিভিতে দেখে , খবরের কাগজে পড়ে নিজেকেও প্রতিজ্ঞাবদ্ধ করে নিয়েছে স্বস্তিকা। মাধ্যমিকে ৬৮০ নম্বর পেয়েছে। ভবিষ্যতে ইঞ্জিনিয়ার বা গবেষক অথবা জীব বিজ্ঞানী নয় চিকিৎসক হতে চায়। দেশের মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চায়।

স্বস্তিকা জানিয়েছেন , “করোনা মোকাবিলায় আমাদের দেশের চিকিৎসক, নার্সদের ভূমিকা দেখে মনকে শক্ত করেছি। স্বার্থহীনভাবে ওঁরা এই সময় কাজ করছেন। জীবন ফিরিয়ে দিচ্ছেন কতো সহস্র মানুষের। আমিও চাই চিকিৎসক হতে। করোনার মতো মারণ ব্যাধির চিকিৎসা করতে। ”

ওঁর সাফল্যে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে পরিবার ও স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা। বাবা কৌশিক ভট্টাচার্য ব্যবসায়ী কাজে ব্যস্ত থাকলেও মেয়ের ইচ্ছে কে সর্বদা সাথ দিয়েছেন। মা হৈমন্তী ভট্টাচার্য কবিতা ও মেয়ের পড়াশোনা দুই বিষয় কে সর্বদা আঁকড়ে ধরেছেন। তিনিও চান মেয়ে দেশের মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করুক। রায়দীঘি কলেজের অধ্যাপক সনৎ কুমার পুরকাইত শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্বস্তিকা কে। তিনি জানান, ” বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে। ছাত্রীরা চিকিৎসক হয়ে দেশের সেবায় এগিয়ে আসতে চায় অবশ্যই একটা ভালো দিক। দেশের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াবে তাকে কুর্ণিশ জানাতেই হয়। “