কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের প্রয়াণ দিবস।


প্রসেনজিৎ বিশ্বাস,কলকাতা।
কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৮৬১ সালে ৭মে, বাংলার ২৫ বৈশাখ কলকাতার জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম দেবেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় ও মাতার সারদা দেবী। তিনি ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, চিত্রকর, অভিনেতা, ছোট গল্পকার,প্রাবন্ধিক, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।
তাকে বাংলা ভাষায় শ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক বলে মনে করা হয়।তিনি কবিগুরু ছাড়াও গুরুদেব ও বিশ্বকবি অভিধায় ভূষিত ছিলেন।সব মিলিয়ে ১৩ টি উপন্যাস, ৩৮টি নাটক, ৫২টি কাব্যগ্রন্থ,৩৫টি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়। তার সর্বমোট ১৯১৫টি গান,৯৫টি ছোটগল্প,গীতবিতান ও গল্পগুচ্ছ সংকলনের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এছাড়া তিনি প্রায় 2000 ছবি এঁকেছিলেন, যেগুলো খুবই মূল্যবান।তার রচনা সারা বিশ্বে বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে। গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদের জন্য তিনি ১৯১৩সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান।
তার বিখ্যাত রচনা গুলির মধ্যে অন্যতম গীতাঞ্জলি, গোরা, আমার সোনার বাংলা, জন-গণ-মন, ঘরে-বাইরে ইত্যাদি।১৯০১সালে তিনি সপরিবারে চলে আসেন বীরভূম জেলার বোলপুর শান্তিনিকেতনে। এখানে দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর একটি আশ্রম ও একটি মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন। তা লিখিত গান জনগণমন-অধিনায়ক দেশের জাতীয় সংগীত হিসেবে বিবেচিত হয়। তাকে সম্মান জানাতে বিখ্যাত হাওড়া ব্রিজের নাম ,তার নামকরনে রবীন্দ্রনাথ সেতু রাখা হয়। ৮০ বছর বয়সে তিনি পরলোকগমন করেন।