ডোমজুড়ে অজগর দেখিয়ে মাদুলি বিক্রি! বন দফতর পৌঁছাতেই সাপ ফেলে অভিযুক্তর ছুট

কল্যাণ অধিকারী, হাওড়া

গলায় ঝুলছে জ্যান্ত অজগর। এভাবেই বাড়ি বাড়ি পৌঁছে যাচ্ছে। তারপর জড়িবুটি ও কুসংস্কারাচ্ছন্ন যুক্তি দেখিয়ে টাকা-পয়সা আদায় করছেন! অজ পাড়া গাঁয়ে নয় খাস হাওড়ার ডোমজুড় এলাকায়। স্থানীয়দের কাছ থেকে বন দফতর জানতে পেরে ছুটে আসেন কর্তারা। কিন্তু ততক্ষণে একাধিক তল্লাটে ঘুরেফিরে মাদুলির কারবার চালিয়ে গেছেন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর সাপটি উদ্ধার হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রবিবার বেলা শুরুতেই ডোমজুড় থানার ঝালুয়ারবেড় এলাকায় এক ব্যক্তি অজগর সাপ নিয়ে ঘোরাঘুরি করছিল। বাড়ি বাড়ি পৌঁছে সাপের নাম করে জড়িবুটি বিক্রি করছে। অজগর কে গলায় জড়িয়ে ওঁনার কথা শুনে অনেকে বিশ্বাস করেছে। আসলে ছেলেপুলে নিয়ে ঘর করে। সংসারের কথা ভেবে ওই ব্যক্তির কথায় বিশ্বাস করে নেয়। কিনেছে মাদুলি। এরপরই এলাকার যুবকরা হাওড়া বন দফতরে খবর দেয়। নজরে রাখা হয় সাপুড়ে কে। বন দফতর আসতেই সাপ ফেলে পালিয়ে যায়।

বন দফতরের আধিকারিক সমীর ব্যানার্জি জানান, আমরা ওই ব্যক্তিকে অনেক খোঁজাখুঁজির পর ঝালুয়ারবেড় এলাকায় দেখা মেলে। আমাদের উপস্থিতি বুঝতে পেরে যায়। ওই ব্যক্তি অজগর ফেলেই পালিয়ে যায়। সাড়ে ৪-৫ফুট লম্বা। বয়স হবে বছর দুই। আমরা উদ্ধার করে আনি। সল্টলেকের প্রাণী উদ্ধার কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

সংসারের মঙ্গল কামনায় বহুমূল্য মাদুলি বিক্রি! বিশ্বাস জাগাতে জ্যান্ত অজগর নিয়ে বেরিয়েছে এক ব্যক্তি। স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় কুসংস্কারা ছড়ানোর প্রয়াস কে বন্ধ করল বন দফতর।