রং ও আবিরে বসন্ত উৎসবে মেতে উঠলো ঝিখিরা

কল্যাণ অধিকারী, হাওড়া

মধ্য ফাল্গুনে বসন্ত উৎসবে মেতে উঠলো আস্ত একটি পরগনা। শান্তিনিকেতন নয় হাওড়া ও হুগলি জেলার সীমানা ঘেঁষা ঝিখিরা গ্রাম। রং আর আবির এবং ফুলের সুরভীতে ভরা আট থেকে আশি সবার মনে দোলা দিয়ে গেল।

ক’দিন বাদেই রং এবং আবিরে বসন্ত বরণে মাততে চলেছে রবিঠাকুরের শান্তিনিকেতন। তার আগে ঝিখিরা নিউচন্ডী ক্লাব সঙ্গীততীর্থের ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক এবং গ্রামবাসীবৃন্দ কে সঙ্গে নিয়ে বসন্ত উৎসব রাঙিয়ে দিল। এ দিন সকাল থেকে ঝিখিরা এলাকা ছিল উৎসবময়। ছোটদের পরনে বাসন্তী রঙের উপর লাল পাড়ওয়ালা শাড়ি। মাথায় ফুলের মালা। এককথায় রঙিন ও বর্ণময় উপস্থাপনা।

“ওরে গৃহবাসী, খোল দ্বার খোল, লাগল যে দোল” বেজে ওঠা গান আর হাতের থালায় রঙিন আবির। ফাল্গুনের এমন একটি দিনে সামিল ছোট বড় সকলে। শিক্ষক নভেন্দু অধিকারীর কথায়, ঝিখিরা নিউচন্ডী ক্লাবের এবারের অনুষ্ঠান ৫৭ বছর পূর্তি। সকাল থেকে আকাশ-বাতাস আবিরে রঙিন। বসন্ত বরণে আমরা সবাই আজ একাত্র। হলুদ সঙ্গে লাল রঙয়ের পোশাক। খোপায় ফুল। ছোট ছোট মেয়েদের গানে এ এক অনন্য মিলন। পাশাপাশি ক্লাবের সদস্যদের দ্বারা যাত্রানুষ্ঠান এখানের পরম্পরা।”

গ্রাম প্রদক্ষিণ করবার সময় শিশুদের হাতে ছিল ফেস্টুন ‘দেশের বায়ু, দেশের মাটি গাছ লাগিয়ে করবো খাঁটি’ লেখা স্লোগান। ‘মায়ের হাতে চারা গাছ, পথ দেখাবে বাংলা আজ’ ইত্যাদি ইত্যাদি। রঙিন উৎসবে প্রকৃতি রক্ষার আবেদন। বসন্তের পাতাঝরা দিনে সঙ্গে কোকিলের ডাক ঝিখিরা গ্রামের রঙিন বসন্ত উৎসব মিলিয়ে দিল ভালোবাসার আখ্যান।