বোরখার পর এবার ঘোমটার পালা!

অর্পিতা বসু,কলকাতা:

চিরাচরিত ভাবে বিভিন্ন নিয়মের বেড়াজালে মেয়েদের মুখ ঢেকে রাখার প্রচলন চলে আসছে।কখনো বরখা তো কখনো ঘুংঘট বা ঘোমটার সাহায্যে।আর ঘোমটা বা বোরখা আড়ালে নিজেদের মুখ ঢাকা চলবেনা বললেন সুরকার গীতিকার জাভেদ আখতার।

প্রসঙ্গত,এপ্রিল মাসের শ্রীলংকার ইস্টার রবিবারের ভয়াবহ সন্ত্রাসবাদ হামলার পর জঙ্গিরা বোরখার সাহায্যে পালিয়ে যায়।এই ঘটনার পর সেই দেশের প্রেসিডেন্ট বোরখা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করে দেন।এই ঘটনার প্রভাব ভারতের ওপর এসে পড়ে।বিখ্যাত লেখিকা তসলিমা নাসরিন সহ বহু বিশেষজ্ঞরা মনে করেন শুধুমাত্র শ্রীলংকাতে কেন বোরখা নিষিদ্ধ হবে,গোটা বিশ্বে বোরখাকে নিষিদ্ধ করা হোক।এই প্রসঙ্গে জাভেদ তার মত দেন,দেশে বরখার পাশাপাশি ঘোমটাকেও বাদ দেওয়া উচিত।

IMG-20190503-WA0007

সম্প্রতি গত বুধবার শিবসেনার তরফ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে আর্জি জানানো হয়েছে,রাবণের লংকায় যদি বোরখাকে বাতিল করা হয়,তাহলে রামের অযোধ্যায় বোরখা কেন নিষিদ্ধ কেন হবেনা।দেশের নিরাপত্তার জন্যই এই দাবি জানিয়েছেন শিবসেনা সহ ভোপালের বিজেপী প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞা ঠাকুর।

কিছুদিন আগে এআইএমআইএম নেতা আসাদউদ্দিন ওয়েইসি প্রশ্ন করেছিলেন,’বোরখা নিষিদ্ধ হলে ঘোমটা নয় কেন’?ভারতের রাজস্থান সহ বিভিন্ন অঞ্চলে মেয়েদের ঘোমটার আড়ালে নিজেদের মুখ ঢেকে রাখতে হয়।এবার একই সুরে সুর মেলালেন গীতিকার জাভেদ।তিনি উভয় ধর্মের মহিলাদের এই চিরাচরিত নিয়ম ভাঙার কথা বলেছেন।তার মতে দুই ধর্মে নিয়ম এক হওয়া উচিত।বোরখার সাথেসাথে ঘোমটাও কি নিষিদ্ধ করবেন প্রধানমন্ত্রী এটাই এখন দেখার।