আর বিলম্ব নয় ‘ভবিষ্যতের ভূতে’

আয়ুষ রায়, কলকাতা :-

গত ১৫ ফেব্রুয়ারী পরিচালক অনীক দত্তের ছবি ‘ভবিষ্যতের ভূত’ সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র নিয়েই মুক্তি পেয়েছিল। তবু কোন অদৃশ্য ওপরওয়ালার থাবাতে নাকি ছবিটির প্রদর্শন বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং একদিনের মধ্যেই অধিকাংশ সিনেমা হল ও মাল্টিপ্লেক্স থেকে ছবিটি সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল। ‘কে এই ওপরওয়ালা’ — কৌতুহল ও প্রশ্নের বাণ টলি পাড়া ও দর্শকদের অন্দরে।

এই নিয়ে প্রযোজক সংস্থা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়। ১৫ মার্চ সুপ্রিম কোর্টে মামলার প্রথম দিনের শুনানি ছিল।

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে — ‘সেন্সর বোর্ড ছাড়পত্র দিয়ে দিলে রাজ্য সরকার বা অন্য কোনও সংস্থা ছবি প্রদর্শনে বাধা দিতে পারে না’।

সুপ্রিম কোর্ট জবাব চেয়েছে — পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্রসচি, আগামী ২৫ মার্চের পরবর্তী শুনানির আগেই হলফনামা দিয়ে জানাতে হবে, ‘চালু ছবি কেন বন্ধ করা হয়েছিল’। রাজ্য পুলিশের ডিজি কে নির্দেশ দিয়েছে, ছবিটি প্রদর্শিত হবে এবং কোন বাধা যাতে না হয়, তারজন্য যথেষ্ট নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করতে হবে, হল ও দর্শকদের যেন কোন অসুবিধা না হয়।

ছবিটির প্রযোজক কল্যাণময় চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘ছবি বন্ধ করার কারণ স্পষ্ট। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ গনতন্ত্রের জয়। তবে যে আয় হবার ছিল, তার ক্ষতি হয়েই গেছে, ছবি বন্ধ করে’।