অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায়কে জেলে পুরে ছিল তৎকালীন কংগ্রেস সরকার  

অরিন্দম মজুমদার

দেশ ও বিশ্ব যখন আনন্দে  উত্তাল অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায়ের নোবেল প্রাপ্তিতে। তখনই উঠে এলো রাষ্ট্র শক্তির দমন পিরণের এক নির্মম চিত্র। ১৯৮৩ সাল অভিজিৎ বন্দোপাধ্যায় দিল্লির  জে এন ইউ এর ছাত্র । তৎকালীন জে এন ইউ এর সভাপতিকে অন্যায় ভাবে অপসারণ ও ফী বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম ছাত্র নেতৃত্ব সামিল হয়েছিলেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায় সহ বাম ছাত্র নেতৃত্ব। তাদের দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত উপাচার্যকে ঘেরাও করেছিল । উপাচার্যের ডাকে পুলিশ এসে অভিজিৎ সহ তৎকালীন ছাত্র নেতৃত্বকে গ্রেফতার করে দিল্লীর তিহার জেলে নিয়ে গিয়ে রাষ্ট্রদ্রোহিতা ও মিথ্যা খুনের মামলা করে। তার উপর পুলিশ নির্মম অত্যাচার করে। পরবর্তীকালে তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়। বর্তমান সময়েও জে এন ইউ ছাত্র আন্দোলনকে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে উমর খালিদ কানহাইয়া কুমারকে আটক ও অত্যাচার করেছিল । পরে তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়। রাষ্ট্র যখন সাধারণ মানুষের ওপর অর্থনৈতিক আক্রমন নামিয়ে আনে ও তার বিরুদ্ধে যখন কেউ প্রতিবাদে সামিল হয় , তখন শোষক শ্রেণী রাষ্ট্রদ্রোহিতার নাম করে অত্যাচার করে ও তা দমাতে চায় । যুগে যুগে ইতিহাস তাই প্রমান করে ।