যুদ্ধই কি একমাত্র সমাধান ?

মৌসুমী সাহা :-

       “মাগো আমরা তোমার শান্তিপ্রিয় শান্ত ছেলে, তবু শত্রু এলে অস্ত্র হাতে ধরতে জানি ভয় পেয়ো না মা গো আমরা প্রতিবাদ করতে জানি।”

       ভারত মাতার বীর সন্তানেরা এই শপথ নিয়ে দিন রাত্রি এক করে ভারত সীমান্তে প্রহরা দিয়ে চলেছে। দেশ মাতার মন্ত্রে দীক্ষিত তারা।

       প্রাণ যায় যাক তবু ভারতের মাটি এক কণা ছাড়া যাবে না। গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি এমনই মর্মান্তিক মৃত্যু ৪৪ জন জওয়ানের জীবনে নেমে এল।

       পুরো ঘটনার জবাব দিতে ভারতমাতার বীর সন্তানেরা রুখে দাঁড়ালো । প্লেন ক্রাশে সিদ্ধার্থ মারা গেল,বন্দী হল অভিনন্দন পাকিস্তানের হাতে। তাতে কি বীর জওয়ানের মাথা তো নোয়ানো যাবেনা। আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে পাকিস্তান বাধ্য হল ভারতের সন্তানকে ভারত মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিতে । অভিনন্দন বীরদর্পে ফিরে এল ভারত মায়ের কোলে।

       কিন্তু এখানেই কি শেষ হবে এই লড়াই? কাশ্মীর ভূখণ্ড নিয়ে যে কাড়াকাড়ির লড়াই চলছে বহু বছর ধরে তার অন্ত কোথায়? আর কত মায়ের কোল শূন্য হলে এই লড়াই থামবে? কত স্ত্রী বিধবা হলে নাকি কত সন্তান পিতৃহীন হলে? নাকি এই লড়াইয়ের শেষ নেই? ভারত মায়ের সন্তানেরা নিজেদের মাকে রক্ষা করার জন্য আর কত লড়াই করবে? এখনও ভারত স্বাধীন হতে গিয়ে যে ক্ষতগুলি তৈরি হয়েছে তাই শুকোয় নি।