২০২২ সালে ফের দেখা মিলবে টাইটানিকের

 

সৌমিত্র চক্রবর্তী: দিনটা ছিল ১৫ এপ্রিল, ১৯১২। ইংল্যান্ডের সাউথহ্যাম্পটন প্রায় ১৫০০ জন যাত্রী নিয়ে নিউ ইয়র্ক-এর পথে যাত্রা শুরু করেছিল বিশ্বের বৃহত্তম জাহাজ, টাইটানিক। কিন্তু নিউ ইয়র্কে যাওয়ার পথে আটলান্টিক মহাসাগরে হিমশৈলে ধাক্কা লেগে ডুবে গিয়েছিল বিশ্বের বৃহত্তম জাহাজ। সেই ভয়ানক স্মৃতি জাগিয়ে ২০২২ সালে আবার জলে নামতে চলছে টাইটানিক।

২০২২ সালে দেখা যাবে আবার,তবে আধুনিকতা ও বিলাসিতার ছোঁয়ায় পুরোপুরি বদলে যাবে ভিতরের আদল। অস্ট্রেলিয়ার ব্যবসায়ী ক্লাইভ পামারের ব্লু স্টারলাইন সংস্থা জাহাজটি তৈরি করেছে। দেখতে অনেকটা প্রথম টাইটানিকের মতোই হচ্ছে। সংস্থার তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, আগের ঘটনা মাথায় রেখে তৈরি হচ্ছে এই নতুন জাহাজের ডিজাইন।নিরাপত্তা ও বিনোদনের কথা মাথায় রেখে অনেক কিছু রদবদল করা হয়েছে এর।জাহাজটি ২৭০ মিটার লম্বা, ৫৩ মিটার চওড়া। ওজন ৪ কোটি টন। ফলে অনেক সংখ্যক যাত্রী একসাথে নিয়ে যেতে সক্ষম হবে নতুন জাহাজটি।৯ তলার এই জাহাজে থাকছে সুইমিং পুল, হেলিপ্যাড, টার্কিশ বাথ, জিম, ৮৪০টি কেবিন.।জায়গা হবে ২,৪০০ যাত্রী এবং ৯০০ ক্রু মেম্বারের। জিপিএস নেভিগেশনের মতো অন্যান্য আধুনিক প্রযুক্তির সাথে মিশিয়ে এক নতুন চেহারায় আসবে টাইটনিক।
তবে ২০২২ সালের কবে বা কোন তারিখে জলে নামবে সেই ব্যাপারে স্পষ্ট কিছু জানানো হয়নি সংস্থার পক্ষ থেকে। গোটা বিশ্ববাসী যে অধীর আগ্রহের সাথে নতুন টাইটনিক দেখার অপেক্ষা করছে তা আর বলার বাকি রাখে না।