সুন্দরবনের বিদ্যাধরী নদীর তীরে ৬১ দূর্গার ২৮২ রুপ

সুভাষ চন্দ্র দাশ ঃ বাসন্তী ঃ —বর্তমান যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পুজোর থিমের বদল হচ্ছে। মডার্ন যুগে মডার্ন থিম। পুরনো থিম ক্রমশ হারিয়ে যাচ্ছে। বর্তমান যুগে পুরনো থিম দর্কদের সামনে তুলে ধরতে চলেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার বাসন্তীর জ্যোতিষপুর জনকল্যাণ সংঘ।৫৮ তম শারদীয়া দুর্গাপূজার ভাবনা নাট মন্দিরে ৬১ রুপের দুর্গা। যা এক চিরন্তন চিত্রকলা সাবেকি ধাঁচে অত্যন্ত সাধারণ। জ্যোতিষপুর জনকল্যাণ সংঘের ৮ লক্ষ টাকা বাজেটের এই প্রচেষ্টাকে বাস্তবে রূপায়িত করে তুলবেন শিল্পী মধু মন্ডল। থিম প্রসঙ্গে শিল্পী জানালেন, প্রায় ৪ মাস ধরে চলছে এই থিম গড়ার কাজ। আশা করি ঠিক সময়েই আমরা ৬১ রূপের দূর্গার ২৮২ টি মূর্তি সকল দর্শনার্থীর সামনে তুলে ধরতে পারবো। অন্যদিকে, থিমের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে প্রতিমা তৈরি করছেন গোবর্ধন মন্ডল। পুজো কমিটির সভাপতি প্রদীপ ভৌমিক বলেন, আমরা এবছর পুরনো আদলের একটি থিম দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরতে চলেছি। খড় ও মাটি দিয়ে তৈরী ৬১ দুর্গার রুপে ২৮২ টি দুর্গার বিভিন্ন রুপের আবির্ভাব ঘটবে আমাদের এই প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী ব-দ্বীপ সুন্দরবনের জ্যোতিষপুর জনকল্যাণ সংঘের রাণীগড় হাটখোলা দুর্গামন্ডপে। তিনি আরও বলেন, আমরা আশা করি এবছর সুন্দরবন সহ কলকাতার দর্শনার্থীদেরও প্রচুর আগমন ঘটবে বিদ্যধরী নদীর তীরে এই ৬১ দুর্গা প্রতিমা মন্ডপে।পুজাকমিটির সম্পাদক শান্তি গোপাল মন্ডল জানান, গতবছরের তুলনায় এবছর নিরাপত্তার উপর জোর দেওয়া হবে। আমাদের সঙ্গে রয়েছেন সিভিক ভলান্টিয়ার্স ও পুজো কমিটির স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ। তিনি আরও বলেন, অন্যান্য বছরের মতো দুঃস্থ মানুষদের জন্য থাকছে বস্ত্র বিতরণ দৈনিক নরনারায়ণ সেবা।সহ-সভাপতি দীপু মন্ডল ও পুজো কমিটির অন্যতম সদস্য বিভূতি হালদার জানান, আমাদের এই জনকল্যণ সংঘের পক্ষ থেকে প্রতিবছর অনুষ্ঠিত হয় সমাজ সেবামূলক কাজ। পুজো কমিটির কোষাধ্যক্ষ রণজীত মন্ডল বলেন, এবছর বিভিন্ন অনুষ্ঠানের পাশাপাশি থাকছে আমাদের স্হানীয় এবং বহিরাগত শিল্পীদের নিয়ে প্রতিদিনই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।মহা ষষ্ঠীর দিন এলাকার মহিলাদের দিয়েই আমরা চিন্ময়ী রুপের মৃন্ময়ী মাকে মন্ডপে অধিষ্ঠিত করি।

IMG-20181009-WA0005