সহিদুলের স্বপ্নটা ছুটছে গন্ত্যবের পথে।

অর্পিতা বসুঃ- আগামী রবিবার আকাশবানীতে প্রচারিত ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদী নিজে সকল ভারতবাসীকে রাম নবমীর শুভেছার পাশাপাশি এক সমাজসেবার কথা শোনালেন যা গোটা দেশের মন ছুঁয়ে গেলো। প্রধানমন্ত্রীর মুখে শোনা গেল সহিদুল নামক এক যুবক এর কথা। সহিদুল হল বারুইপুরের বেগমপুর পঞ্চায়েত এলাকার কুড়ি গ্রামের বাসিন্দা। ১৩বছর আগে তার একমাত্র বোন মাহরুফাকে হারান।

unnamed (39)

মাহরুফার হাড়ে জল জমায় বুকেপিঠে তীব্র ব্যাথা হয় প্রথমে হাতুড়ে ডাক্তার দিয়ে চিকিৎসা করানো হয়, পরে কলকাতায় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করাতে ব্যার্থ হয় সহিদুল বাবু। বিনা চিকিৎসায় অবশেষে প্রান হারাল মহরুফা। এর পর সহিদুল প্রতিজ্ঞা করেন গ্রামে এক হাসপাতাল তৈরী করবেন। সহিদুল বাবু তার স্বপ্ন পূরণ করার জন্য ৩টি ট্যাক্সি ও স্ত্রীর গয়না বিক্রি করে বেচে ২বিঘা জমি কেনেন।হাসপাতাল তৈরীর কথা শুনে অর্থ সাহায্য করেন ট্যাক্সি সওয়ারিওরা। এভাবে আর্থিক সাহায্যের মাধ্যমে কলকাতার কাছে ৩০ বেডের একটি হাসপাতাল তৈরী করেন। হাসপাতালের নাম রাখা হয়ছে মাহরুফা স্মৃতি ওয়েলফেয়ার। ৮জন ডাক্তার নিয়োগ করা হয়ছে। আগামি ৩ মাসের মধ্যে ওপিডি সেকশান শুরু হয়ে যাবে।
এইভাবে সহিদুল লস্কর যাবতীয় বাধা দূর করে সমাজসেবার এক অন্যতম দৃষটান্ত গড়ে তুললেন।তার স্বপ্নটা স্টিয়ারিং আর চার চাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলনা।

ছবিঃ সংগৃহীত