সব বডিয়া হ্যায়’

 

অমৃতা মুখার্জীঃ-গত শুক্রবার মুক্তি পেল অনুষ্কা শৰ্মা ও বরুন ধাওয়ান অভিনীত সুঁই ধাগা-মেড ইন ইন্ডিয়া।

মউজি (বরুন) একটি সেলাই মেশিনের দোকানে কাজ করে নিজের সংসার চালায়।যেখানে তাকে প্রতি মুহূর্তে লাঞ্ছিত হতে হয় দোকানের মালিক ও তার ছেলের কাছে।

একদিন মউজি র জীবনে সপ্নের উড়ান নিয়ে আসে তার স্ত্রী মমতা (অনুষ্কা)।মউজি কে মমতা উৎসাহিত করে নিজের পায়ে দাঁড়াতে যাতে তাকে আর দু পয়সার জন্য হাসির পাত্র না হতে হয়।

মমতা ও মউজি নিজেদের সেলাই এর ব্যবসা শুরু করতে চায় কিন্তু তাতে বাধা হয় দাঁড়ায় মুজির অবসরপ্রাপ্ত বাবা ও পরিবারের অন্য সদস্যরা।

সেই সব বাধা অতিক্রম করে মউজি ও মমতার ভাগ্য ঘুরে দাঁড়ায় এক ফ্যাশন শো প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

মউজির ‘পর সব বডিয়া হ‍্যায়’ চিন্তা ধারা সমগ্র চলচ্চিত্রের উপর প্রভাবশালী থিম। আশাবাদী এবং কখনও হার না মানার মনোভাব মানুষকে না না কষ্টের মধ্যে দিয়েও সফল করে তোলে।সেটাই দেখাতে চেয়েছেন শরৎ কাটারিয়া।

মউজির বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন রাঘুবীর যাদব যিনি ছেলে কে সব সময় বিদ্রুপ করেন কিন্তু পরে তিনিই প্রতিযোগিতা জিততে সাহায্য করেন। মউজির মায়ের ভূমিকায় যামিনী দাস সংসারের জন্য এতটাই ভাবেন যে হার্ট এটাক হয়ে মাটি তে পরে যাওয়া সত্বেও হাত থেকে বাটি ছাড়েনা।তখন তার স্বামী মজা করে বলে ওঠে ‘পাতিলে সে মারেগি ক্যা’ হালকা হাসির মুহুর্ত সৃষ্টি করে।

শরৎ কাটারিয়া দম লাগাকে হাইয়সার পর আবার একটা সুন্দর কাহিনী উপহার দিয়েছেন।সুই ধাগা-মেড ইন ইন্ডিয়া একটি ছোট শহরের গল্প যেখানে হঠাৎ পাড়ার কেউ বাড়িতে চা খেতে চলে আসে বা নিজে থেকে অন্যের বিপদে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

এই ছবিতে অনু মালিকের সুর ততটা চমক জাগাতে পারেনি।মমতার ভূমিকায় আনুস্কা শর্মার প্রাণবন্ত ও যথাযথ। বারুণ ধাওয়ান অক্টোবরের পর, আরেকটি অসাধারণ পারফরম্যান্সের মাধ্যমে আমাদের উচ্ছাসিত করেছেন।

১২৩ মিনিটের এই ছবিটি আপনাকে স্বপ্ন দেখতে শেখাবে,শেখাবে স্বনির্ভর হতে।মউজি র মতো ভাবতে শেখাবে জীবনে যাই হোক সব বডিয়া হ্যায়।