শিকাগো যাওয়ার বাধায় ক্ষুদ্ধ মমতা”

হেমশ্রী বিশ্বাস, কলকাতা
সম্প্রতি শিকাগোতে অনুষ্ঠিত হলো বিশ্ব ধর্ম-সম্মেলন। স্বামী বিবেকানন্দের বক্তৃতার ১২৫ তম বর্ষপূর্তির উপলক্ষে বিবেকানন্দ বেদান্ত সোসাইটি থেকে মুখ‍্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। মুখ‍্যমন্ত্রীর যাওয়ার কথা ছিলো ২৬অগস্ট। কিন্তু ১১জুন ওই সোসাইটির পক্ষ থেকেই তাকে চিঠিতে অনুষ্ঠান বাতিলের কথা জানানো হয়। ঠিক তিন মাস পর এই মঙ্গলবার বেলুড় মঠের অনুষ্ঠানে ওই প্রসঙ্গ তুলে ক্ষোভ উগড়ে দেন মমতা। সরাসরি কারো নাম তোলেন নি। কিন্তু শিকাগোর অনুষ্ঠানে তাঁর যাওয়া বন্ধ করে দেওয়ার পিছনে ‘অশুভ চক্রান্ত’ হয়েছিল বলে জানিয়েছেন বেলুর মঠে। নানা বাক‍্য বুঝিয়ে দিলেন, সফর বাতিলের নেপথ‍্যে কারা ছিলেন। তিনি মন্তব্য করেন ‘আমরা শিকাগোয় যাওয়ায় চেষ্টা করে ছিলাম। স্বামীজী যে হলে বক্তৃতা দিয়েছিলেন সেখানেই যাওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক সেখানে যাওয়ার হয়নি। যারা চাইছিল না , রামকৃষ্ণ মিশন যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে আমরা বাংলার মাটির লোকেরা সেখানে যাই।” এই চিঠি রামকৃষ্ণ মিশনের পক্ষ থেকে পাঠানো হলেও তিনি মনে করেন তার পিছনে অন‍্য ‘চাপ’ ছিল, এই কথা প্রকাশ‍্যে উল্লেখ করেন। “আমাদের যেতে না দেওয়ার পিছনে যে কারন গুলো বলা হয়েছিল, তার নেপথ্যে আসল খবরগুলো আমি সবই জানি। এই জন্য রামকৃষ্ণ মিশনকে আমি দোষারোপ করিনা। তবে আমি বলে দিই এ ভাবে কাউকে রোখা যায়না, যাবে না।”
এই সফর বাতিলের পরে রাজনৈতিক মহলে খবর ছড়িয়েছিল যে, দিল্লির শাসকদের অঙ্গুলি – সঙ্কেতে যাত্রা আটক করা হয়েছিল। এদিন বেলুড় মঠে স্বামীজী র শিকাগো বক্তৃতার ১২৫তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে দেশ জুড়ে সারা বছর ব‍্যাপি অনুষ্ঠানের সূচনা করেন রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের অধ‍্যক্ষ স্বামী স্মরণানন্দ। মুখ‍্যমন্ত্রী ছিলেন প্রধান অতিথি। মুখ‍্যমন্ত্রী এদিন বিবেকানন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের জন‍্য দের কোটি টাকা ও রাজারহাটে নির্মীয়মান বিবেক-তীর্থের জন‍্য ১০কোটি টাকার চেক রামকৃষ্ণ মিশন মঠ ও মিশনের অধ‍্যক্ষের হাতে তুলে দেন।