“‘রাফাল’ ইস‍্যুতে ওঠা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন, হয়নি কোনও রকম দুর্নীতি স্পষ্ট জানিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট”

 

হেমাশ্রী বিশ্বাস, কলকাতা
রাফাল ইস‍্যুতে শীর্ষ আদালতের রায়ে স্বস্তির নিশ্বাস বিজেপির। আদালতের রায়ে প্রকাশিত হওয়াতে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে গেরুয়া শিবির। এবং শুধু তাই নয় রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে তুমুল হট্টগোল ও জুড়ে দেন বিজেপি সাংসদরা। শুক্রবার রাফাল ইস‍্যুতে জেপিসি-র দাবিতে সংসদের উভয়কক্ষে তুমুল হট্টগোল। দফায় দফায় মুলতবি সংসদের উভয়কক্ষে অধিবেশন। আগামী সোমবার পর্যন্ত লোকসভার অধিবেশনে মুলতবি ঘোষণা ও করা হয়। আনুমানিক রিভিউ পিটিশনের পথে আবেদনকারী আইনজীবীরা।

অন‍্য দিকে রাফাল ইস‍্যুতে শীর্ষ আদালতের রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও রিলায়েন্সের ডিফেন্স চেয়ারম্যান অনিল আম্বানী। সূত্রের খবর অনুযায়ী আদালতের রায়ের ভিত্তিতে রাহুলের বিরুদ্ধে মোটা অঙ্কের মানহানির মামলা করতে পারেন অনিল আম্বানী। কারন রাফাল ইস‍্যুতে সরাসরি অনিল আম্বানীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ছিলেন রাহুল।

এদিন সকালে রাফাল মামলার রায় ঘোষণা করেন শীর্ষ আদালত। জাতীয় সুরক্ষা প্রধান বিষয়ে, সেই কথাকে মাথায় রেখে আদালতের নজরদারির তত্ত্বাবধানে তদন্তের আবেদন খারিজ করলো শীর্ষ আদালত। ৩৬ টি রাফাল বিমান কেনার চুক্তিতে কোনও দুর্নীতি হয়নি এনডিএ জমানায়। জানিয়েছেন শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতি বেঞ্চ। তদন্তের দাবি খারিজ করে শীর্ষ আদালত জানিয়েছেন যে যুদ্ধ বিমান কেনার জন‍্য যে প্রক্রিয়া গৃহীত হয়েছিল তাতে দুর্নীতি ছিলনা। কেন্দ্রর সিদ্ধান্তে প্রশ্ন তোলা উচিত নয়।

চুক্তিতে আর্থিক দুর্নীতি হয়েছিল এমন তথ‍্য প্রমাণ মেলেনি কোথাও। এর সঙ্গেই আদালত জানিয়েছেন ১২৬ টির পরিবর্তে ৩৬ টি বিমান কেনো কেনা হচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা অনুচিত। এটা সম্পূর্ণ বানিজ্যিক কারন ও ভারত সরকারের সিদ্ধান্ত। যুদ্ধ বিমানের দাম ও ক্ষমতা নিয়ে তুলনা করা আদালতের কাজ নয়। তাই এ চুক্তি বিষয়ে কোনও হস্তক্ষেপ করবেনা সুপ্রিমকোর্ট। এবং এমন কোনও বিষয় খুঁজে পাওয়া যায়নি যা দেখে বলা যায় রাফালের দরুন কাউকে আর্থিক সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য ফ্রান্সের কাছ থেকে রাফাল যুদ্ধ বিমান কেনার দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সুপ্রিমকোর্টে একাধিক মামলা দায়ের হয়। শুক্রবার সেই মামলাতে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তি হীন বলে রায় ঘোষণা শীর্ষ আদালতের।

IMG-20181214-WA0068