যুব উচ্ছাসে মাতল যুবভারতী

প্রদ্যুৎ বিশুই:- ফুটবল প্রেমী বাঙালিদের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে বিশ্বকাপের মতো বড় উপহার নিয়ে হাজির হল বিশ্বের অন্যতম বিবেকানন্দ যুবভারতী স্টেডিয়াম। ওইদিন ভারতীয় দলের খেলা না থাকলেও দর্শক সংখ্যার নিরিখে ষ্টার মার্কস নিয়ে পাস করল যুবভারতী। হোক না অনূর্ধ্ব ১৭ কলকাতার বুকে ফুটবল মানেই বাঙালির উচ্ছাস দেখে হতবাক বিদেশি সাংবাদিক থেকে দর্শকরাও। দর্শক আসন ছিল ৮০০০০ যার মধ্যে ৬০০০০ আসনই ছিল পূর্ণ।

IMG-20171009-WA0001 copy
ম্যাচ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য সবরকম ব্যবস্থাই করেছিল রাজ্য সরকার। ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তা বলয় দ্বারা ঢেকে ফেলা হয় যুবভারতিকে।এছাড়াও ছিল প্রচুর স্বেচ্ছাসেবী। কোথায় কীভাবে গেলে অনায়াসে মাঠে ঢোকা সম্ভব হবে খেলা দেখতে আসা দর্শকদের তা জানিয়ে গিয়েছে তারা। যাতায়াতের জন্য স্পেশাল বাস দেওয়া থাকলেও ম্যাচ শেষে একটিরও দেখা পাওয়া যায়নি বলেই দাবি দর্শকদের। ফিফার নতুন নিয়মানুযায়ী স্টেডিয়ামের মধ্যে জলের বোতল, ব্যাগ, ছাতা ও অন্যান্য সামগ্রী নিয়ে প্রবেশ করা যাবে না, আর এই সব সামগ্রী রাখার কোনো বন্দোবস্ত করে নি স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ, যার ফলে বাধ্য হয়েই গেটের বাইরেই সব ছেড়ে যেতে হয়, খেলে শেষে ওই সব সামগ্রী ফেরত না পাওয়ায় নিরাপত্তা রক্ষীদের সাথে বচসায় জড়িয়ে পড়েন দর্শকরা। এছাড়াও স্টেডিয়ামের ভিতর পর্যাপ্ত পানীয় জল, শৌচাগারের বন্দোবস্ত ছিলনা বলেই দাবি করেছেন দর্শকরা। স্টেডিয়ামের বাইরে টিকিট ব্ল্যাক করার অপরাধে ৭ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
ওইদিন স্টেডিয়ামে দুটি ম্যাচ আয়োজিত হয়। প্রথম ইংল্যান্ড বনাম চিলি ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ৪-০ গোলে পরাজিত হয় চিলি। দ্বিতীয় মেক্সিকো বনাম ইরাক ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়।