বিস্ফোরক দাবি বিজয় মালিয়ার;তোলপাড় রাজনীতি

কলকাতা, সৌমিত্র চক্রবর্তী:দেশ ছাড়ার আগে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সঙ্গে দেখা করেছিলেন, লন্ডনের আদালতের বাইরে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের সামনে বললেন ৯,০০০ কোটি টাকার কেলেঙ্কারির ভিলেন বিজয় মালিয়া। রীতিমতো বোমা ফাটালেন মালিয়া।
তাঁর দাবি, দেশ ছাড়ার আগে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সঙ্গে দেখা করেছিলেন তিনি। বলেছিলেন, তাঁর বকেয়া টাকা পয়সা মিটিয়ে দিতে চান। সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর।লন্ডনের ওয়েস্টমিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের বাইরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময়ে মালিয়া বলেন, “আমি চলে আসার আগে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছিলাম। ব্যাঙ্ক আমার সেটলমেন্টের চিঠি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিল।” ওয়েস্টমিনস্টার আদালতেই শুনানি চলছে এই লিকার ব্যারনের ভারতে প্রত্যর্পণের  মামলার। ৯,০০০ কোটি টাকার জালিয়াতি ও তছরুপের দায়ে অভিযুক্ত বিজয় মালিয়া। তিনি জানিয়েছেন, কর্নাটক হাইকোর্টের কাছেও বিষয়টির সর্বাঙ্গীন বোঝাপড়ার কথা বলেছিলেন তিনি।
বিজয় মালিয়ার এই বিস্ফোরক দাবির পর অরবিন্দ কেজরিওয়াল ট্যুইট করে জিজ্ঞাসা করেছেন, ‘এতদিন পর্যন্ত এই বিষয়ে কেন কোনও কিছু জানায়নি অরুণ জেটলি ?’ ২০১৬ সালে মালিয়া যখন দেশ ছাড়েন তখন অর্থমন্ত্রী ছিলেন অরুণ জেটলি.।এর মধ্যে কংগ্রেস জানায়, এতদিন তারা যে দাবি করে আসছিল, তার মধ্যে কোনোও মিথ্যা ছিল না, তা আজ প্রমাণ হয়ে গেল।কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিংভি বলেন, কংগ্রেস ১৮ মাস ধরে এই দাবি করে আসছে। শুধু বিজয় মালিয়াই নন, নীরব মোদী ও অন্যান্যরাও বিজেপিকে জানিয়ে দেশত্যাগ করেছে। বিজেপি সরকার সবই জানে। কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিংভি ছাড়াও বিজয় মালিয়ার বিস্ফোরক মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে গর্জে ওঠেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি।
উল্লেখ্য, ৯০০০ কোটি টাকা ব্যাঙ্ক ঋণ নিয়ে কিংফিশার কর্ণধার বিজয় মালিয়া দেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি দেন। সেই থেকে তিনি ইংল্যান্ডেই রয়েছেন। লন্ডনের কাছে তাঁকে প্রত্যার্পণের আর্জি জানিয়েছে সিবিআই। কিন্তু লন্ডন আদালত তা খারিজ করে দিয়েছে। এদিকে ১৩৫০০ কোটি টাকা পিএনবি কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত নীরব মোদী ও মেহুল চোকসিও পলাতক।এ নিয়েও তোপ দেগেছেন রাহুল গান্ধী।
আজকে মালিয়ার বিস্ফোরক মন্তব্যের পর তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে দিল্লির রাজনীতিতে। যদিও বিজেপি তথা অরুণ জেটলি সমস্ত কিছুই অস্বীকার করেন।