বিজয় মালিয়ার ভারতে প্রত্যাবর্তন ব্রিটেনের আদালতের রায় কে স্বাগত সিবিআইয়ের

 

হেমাশ্রী বিশ্বাস, কলকাতা
মিশেলের পর আরও এক সাফল‍্যের নজীর গড়লেন মোদী সরকার। বিজয় মালিয়াকে ভারতে পত‍্যর্পণে আর থাকল না কোনও বাধা। মালিয়াকে ভারতে ফেরাতে আপত্তি নেই ব্রিটেনের আদালতের। ব্রিটেনের এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন সিবিআই। তবে এই রায়কে চ‍্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে আপিল করার সুযোগ থাকছে মালিয়ার। মালিয়াকে পত‍্যর্পণে লন্ডনে রওনা দিয়েছিলেন সিবিআইয়ের যুগ্ম অধিকর্তা এ সাই মনোহরের নেতৃত্বে সিবিআই এবং ইডির একটি যৌথদল।

ইতিমধ্যে বেশ কয়েকদিন যাবৎ সোশ‍্যাল সাইটে ঋন শোধের একাধিক প্রস্তাব দিয়েছেন বিজয় মালিয়া। বলেছেন ‘আমি টাকা ফেরাতে চাই। টাকা চুরির যে অভিযোগ উঠেছে, তা থামাতে চাই।’ তাঁর বক্তব্য, তিনি আদালতের কাছে ১৪হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি ফেরত দেওয়ার আর্জি জানিয়েছিলেন।

আদালতের তত্ত্বাবধানে সেই সম্পত্তি বিক্রি করে সমস্ত ঋন শোধের কথা বলেছিলেন। তিনি সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন, তাঁর দাবি সরকারের তরফ থেকে ব‍্যঙ্ক গুলিকে তাঁর প্রস্তাব অগ্রাহ্য করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন‍্য দিকে ইডি-কে তাঁর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ব‍্যঙ্ক গুলিকে ১০০ শতাংশ মূলধন উদ্ধার করার সুযোগ দেওয়া হোক। যাতে সাধারণের অর্থের কোনও ক্ষতি না হয়। বাকি ঋন সুদের ভবিষ্যৎ কি হবে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার আদালতের উপর ছেড়ে দেওয়া উচিত।

উল্লেখ্য, এক বছর আগে লন্ডনে গ্রেফতার করা হয় বিজয় মালিয়াকে। এরপর গত বছর ডিসেম্বরের থেকে ম‍্যাজিটে আদালতে মালিয়ার বিচার শুরু হয়। ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার প্রসঙ্গে মালিয়ার অভিযোগ স্বাস্থ্যকর জেল নেই ভারতে। তার পরিবর্তে মালিয়ার জন‍্য বিশেষ জেলের ব‍্যবস্থার আশ্বাস ও দেওয়া হয় ভারতের তরফ থেকে। ভারতে কূটনৈতিক মহলে যে ভাবে চাপ সৃষ্টি করছে, মালিয়ার প্রত‍্যর্পণে পক্ষে রায় আসার সম্ভাবনা প্রবল মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এই আভাশের উপর আস্থা রেখেই কি ১০০ শতাংশ ঋণ মিটাতে উদ্যোগী হয়েছে মালিয়া? জল্পনা কল্পনা যাই হোক লোকসভার আগে মালিয়াকে ভারতে ফেরাতে সক্ষম হলে রাজনীতিতে সাম্প্রতিক জয়ের আশা পাবে বিজেপি।