ফুটবল জ্বরে কাঁপছে যুবভারতী।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ- ডেঙ্গি নিয়ে যখন সব তোলপাড় চলছে তখন যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন বাদ গেলোনা।যুবভারতীও এখন জ্বরে কাবু।তবে যুবভারতী যে জ্বরে কাবু তার দিকে তাকিয়ে আছে বিশ্ব।আজ শহর কোলকাতায় যুবভারতী বিশ্বকাপ জয়ে কাবু হয়ে উঠেছে।আজ যুবভারতী মহারনের ফাইনালে নামছে ইংল্যান্ড ও স্পেন। আজ দুদলের কাছে ট্রফির দূরত্ব কাপ ও ঠোঁটের মধ্যে যা দূরত্ব।৬ অক্টোবর যুব বিশ্বকাপের ঢাকে কাঠি পড়েছিল। সঙ্গে ছিল ভারতের মাটিতে প্রথম কোনও ফিফা ইভেন্ট আয়োজনের চ্যালেঞ্জ। ফিফা প্রেসিডেন্ট ইনফান্তিনো আয়োজনের রূপ ও পরকাঠামো দেখে যতপরনায় খুশি এবং তিনি বলে দিয়েছেন, ভারত এখন ফুটবলের দেশ। এ দেশে বড়দের বিশ্বকাপও আয়োজন করা যায়।
ভারতে যে ফুটবলের আবেগ তা তাঁকে মুগ্ধ করেছে।
তিনি আরও বলেন ভারতের যে আবেগ, উৎসাহ, আগ্রহ তা যে কোনো বিশ্বকাপ খেলিয়ে দেশকে পিছনে দিয়েছে।

ভারতের ছেলেরা একটি ম্যাচও না জিতেও তারা স্থান করে নিয়েছিলো মানুষের মণিকোঠায়।তাদের অদম্য লড়াই ভোলার নয়। আর অন্য দিকে, নিজের দেশের সাথে সাথে ভারতের জনতারা গলা ফাটিয়ে ফুটবলের জন্য। যা দেখে আপ্লুত বাকি সব দেশের প্রতিনিধিরা।

আর এই সব কিছুর পিছনে রয়েছে একশো ত্রিশ কোটির দেশের ফুটবল পাগল জনতা।

ফিফার হিসাবে অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ শুরু বছর(১৯৮৫),যে বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিলো চিন তা দর্শক সংখ্যা ছিলো ১২লক্ষ৩০হাজার ৯৭৬জন। এখন পর্যন্ত ভারতের দর্শক সংখ্যা ১২লক্ষ২৪হাজার ২৭জন।তবুও ভারতের হাতে এখনও বাকি দুটো ম্যাচ। তার মধ্যেই ভারতে বিশ্বকাপ দেখেছে ১২ লাখ ২৪ হাজার ২৭ জন। আর ৬৯৫০জন দর্শক সংখ্যা হলেই বিশ্বরেকর্ড করবে ভারত।বিশ্বরেকর্ড যে করবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেয়। এর থেকে সহজেই অনুমেয় ভারত এখন কিরূপ ফুটবল জ্বরে ভুগছে।