নোট বাতিলের দ্বিতীয় বর্ষে সুর চড়ালেন রাহুলের সঙ্গে চিদম্বরম

হেমাশ্রী বিশ্বাস, কলকাতা

২০১৬ সালে নরেন্দ্র মোদীর ‘নোট বাতিল’ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে দেশ জুড়ে ধর্না-বিক্ষোভে নামবে কংগ্রেস। নোট বাতিলের দরুন কাদের লাভ হয়েছে সেই প্রশ্নই তুলবে তারা। নোট বাতিলের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তির দিনেই, বৃহস্পতিবার কলকাতায় এসে নোট বাতিলের বিরুদ্ধে সরব হবেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম। কংগ্রেসের সর্বভারতীয় ইস্তেহার কমিটির এবারের কলকাতা সফরের মূল উদ্দেশ্য মুখোমুখি আলোচনার আসর থেকে জনতার মতামত সংগ্রহ।

লোকসভা নির্বাচনে ইস্তেহার তৈরির আগে বিভিন্ন ক্ষেত্রের প্রতিনিধিদের মতামত নিতে চায় রাহুল গান্ধী। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী ইস্তেহার কমিটির সদস‍্যেরা নানা রাজ‍্যে, নানা শহরে যাচ্ছেন। শশী তারুর গত সপ্তাহে কলকাতা ঘুরে গেলেন ঐ একই কাজেই। তিনি মত বিনিময় করেছিলেন পরিবেশ সংক্রান্ত বিষয়ে। এবার খোদ প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম এসে মুখোমুখি হবেন অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প মহলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে। মৌলালি যুবকেন্দ্রে ওই আলোচনার আসরের আয়োজন করেছে প্রদেশ কংগ্রেস।

এবং তার আগে বিধান ভবনে নোট বাতিল নিয়ে সরব হওয়ার কথা চিদম্বরমের। সব রাজ‍্যে শুক্রবার নোট বাতিলের বিরুদ্ধে ধর্না ও বিক্ষোভের কর্মসূচি তে অংশগ্রহণ করতে বলা হয়েছে এআইসিসি তরফ থেকে। তবে বাংলায় কালি পূজা ও ভাই ফোঁটার জন‍্য ৯নভেম্বরের বদলে ঐ কর্মসূচি নেওয়া হবে ১০নভেম্বরে। প্রদেশ কংগ্রেসের এক নেতা বলেছেন ” কলকাতার পাশাপাশি সব জেলা সদরে কিছু কর্মসূচি থাকবে।”

মোদীর ‘তুঘলকি ফরমানে’র জেরে শুধু বিজেপির ঘনিষ্ঠ নেতা ও তাঁদের ঘনিষ্ঠ ব‍্যবসায়ী ছাড়া আর কোন সুবিধা লাভ হয়নি, এই অভিযোগই রাখবে কংগ্রেস। নোট বাতিল নিয়ে প্রশ্ন তোলায় প্রধানমন্ত্রী দু’বছর আগে বলেছিলেন , ওই পরিকল্পনায় দেশের অর্থনীতির ভাল না হলে জনসমক্ষে যেকোনো জায়গায় তাঁকে ফাঁসিতে ঝোলানো যেতে পারে! মোদীর সেই ‘ঘোষণা’ই এখন দেশবাসীকে মনে করিয়ে দিতে চাইছেন চিদম্বরম ও কংগ্রেস।