নিজেকে ফুটবলার হিসেবে পরিচয় দিতেই এখন লজ্জা করছে : তরুণ দে।

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- মেয়েকে কথা দিয়েছিলেন ।কিন্তু কথা রাখতে পারেননি। তিনি তরুন দে। প্রাক্তন ফুটবলার । ইস্টবেঙ্গল, রাজ্য, দেশের হয়ে খেলেছেন তিনি। জাতীয় দলের এই প্রাক্তন অধিনায়ক তাঁর মেয়েকে যুবভারতীতে অনুর্ধ্ব – ১৭ বিশিবকাপ ফাইনাল  দেখাতে নিয়ে যাবেন বলে কথা দিয়ে ছিলেন। দেশের হয়ে খেলা ফুটবলার হয়েও আমি আমার মেয়েকে দেওয়া কথা রাখতে পারিনি। বাবা হয়ে এর চেয়ে লজ্জা যন্ত্রনার আর কি হতে পারে! অনেক চেষ্টা করেও আমি দুটো টিকিট জগাড় করতে পারিনি। অথচ বিশ্বকাপের আগে শুনেছিলাম জাতীয় দলের প্রাক্তন ফুটবলাররা টিকিট পাবে। কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি। একই অভিমত প্রাক্তন ফুটবলার কুমারেশ ভাওয়াল এরও। টিকিট না পেয়ে হতাশ তরুন বাবু বলেন, ”প্রাক্তন ফুটবলার হয়েও শুধু মাত্র টিকিটের জন্য সাধারন মানুষের সঙ্গে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা আমার কাছে অত্যন্ত অপমানজনক মনে হয়েছিল”। উল্লেখ্য তরুন বাবু বিশ্বকাপ ফাইনালের টিকিট জোগাড় করতে গিয়ে কিভাবে অপদস্থ হয়েছেন সে ঘটনার কথা আগেই নিজের ফেসবুক ওয়ালে পোষ্ট করে জানিয়ে ছিলেন। সোসাল মিডিয়ায় যা দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।

IMG_20171031_103555