ধর্ম হোক যার যার বড়কালী সবার

বাবুসোনা মন্ডল ঃ নৈহাটির ঐতিহ্যমণ্ডিত শ্যামা পূজা মানে সর্বশেষ্ঠ পূজা নৈহাটির বড়কালী ওরফে বড়মা । কালীপূজা তে দূর-দূরান্ত থেকে বহু ভক্তের সমাগম হয় নৈহাটিতে। বড় কালীর পুজা পুরোটাই দানবাক্সের টাকা থেকে হয় মায়ের পূজা পুরোটা ভক্তরা দান করে। বড় কালীর গায়ে প্রায় দু কোটি টাকার গহনা থাকে। সবকিছুই ভক্তরা দান করেছে মায়ের বিশাল মূর্তি সোনা রুপা গহনা দিয়ে মোরা থাকে।

বড় কালীর পুজো দেয়ার জন্য কালীপুজোর ৩থেকে ৪ দিন আগে থেকে পুজো দেওয়ার লাইন পড়ে যায়। ৫০ থেকে ৬০ হাজার ভক্ত উপস থেকে প্রতিবছর মায়ের পুজো দেয়। নৈহাটির একটি রীতি রয়েছে যতক্ষণ না বড়কালী বিসর্জন হয় ততক্ষণ নৈহাটি এলাকার কোন প্রতিমা বিসর্জন হয় না। বড় কালীর বিসর্জন দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে প্রতিবছর বহু দর্শনার্থী নৈহাটিতে এসে উপস্থিত হন নৈহাটি পুলিশ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে এ বছরে দুই থেকে আড়াই কোটি দর্শনার্থীর সমাগম হবে নৈহাটিতে। বড় কালীপুজোর যে সমস্ত ফল মায়ের উদ্দেশ্যে দান করা হয় সেই ফল নৈহাটির পার্শ্ববর্তী হাসপাতালগুলিতে রোগীদের উদ্দেশ্যে দান করা হয়।
এই কারণে নৈহাটির বড় মাকে নিয়ে একটি কথা প্রচলিত রয়েছে ধর্ম হোক যার যার বড়কালী সবার।