কেরলের পাশে গোটা দেশ।

রিয়া বাগ:- ঈশ্বরের আপন রাজ্যই ভয়াবহ বন্যায় কবলিত। সরকারি হিসেবে কেরালা বন্যায় মৃতের সংখ্যা ৩২৪ ছাড়িয়েছে। আহত ও ক্ষতি গ্রস্ত একাধিক পরিবার।
কেরালায় অতি বৃষ্টি নতুন নয়। কিন্তু এরকম ভয়াবহ পরিস্থিতি দীর্ঘ অনেক বছর পর। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এটিকে জাতীয় বিপর্যয়ের আখ্যা দিতে বলেছেন প্রধান মন্ত্রীকে।
প্রাক্তন প্রধান মন্ত্রী বাজপাইয়ে র শেষ কৃত সম্পন্ন করে নরেন্দ্র মোদি কেরলের অবস্থা পর্যবেক্ষণে যান। সেনা কপ্টারে তাঁর সাথে ছিল কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, রাজ্যপাল পি সদাশিবম সহ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কে জে আলফোনস।
পিনারাই বিজয়নের মতে কেরলে আপাতত আর্থিক হিসেবে ক্ষতির পরিমাণ ১৯ হাজার ৫১২ কোটি টাকা। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ত্রাণ হিসেবে ২০০০ কোটি টাকা চান। প্রধান মন্ত্রী পরিস্থিতি বুঝে ত্রাণ তহবিল থেকে ৫০০ কোটি টাকা দেবেন বলে জানান। মৃতের পরিবার গুলিকে ২ লক্ষ ও আহতদের ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার ঘোষণা করেন।
প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে সর্বশান্ত কেরোলকে ২০ কোটি টাকা ত্রাণ দেন মহারাষ্ট্র সরকার। ১০ কোটি টাকা করে দেন বিহার, গুজরাট, ঝাড়খণ্ড ও মধ্যপ্রদেশ সরকার। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী যদিও শুধুই সমবেদনা জানিয়েছেন।
কংগ্রেস দলীয় নেতৃত্ব তাদের সাংসদ ও বিধায়ক দের এক মাসের বেতন কেরলে ত্রাণ হিসেবে দান করার কথা জানিয়েছেন। একই সিদ্ধান্ত আনন্দ কেজরিওয়ালের।
প্রধনমন্ত্রী বলেছেন কেরলের পাশে গোটা দেশ । কেরলের মানুষের সাহসী মানসিকতাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন তিনি।
উদ্ধার কার্য চলছে আকাশপথে। কপ্টারের সংখ্যা বাড়ানোর কথাও বলেছে প্রশাসন। উদ্ধার কার্য দ্রুত না হলে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়বে বলে জানাচ্ছেন কেরলবাসী। এখন দেখার বৃষ্টি থামলে পরিস্থিতি কত তাড়াতাড়ি স্বাভাবিক করা যায়।