এফ আইআর করবেন মোদী?” শীর্ষ আদালতের আগেই রাফাল মূল্য ফাঁস অনিল আম্বানির ?”

 

হেমাশ্রী বিশ্বাস, কলকাতা

এখন ভোটের জোয়ারে দুই রাজ‍্যে আজ প্রধানমন্ত্রী সভা করলেন, কিন্তু রাফালের প্রসঙ্গে মুখে কুলুপ।

কংগ্রেস নেতা পবন খেরা বলেন, ” রাফাল নিয়ে জবাব দিতে আগে তাও ক্রীড়ামন্ত্রী ও বনমন্ত্রীরা আসতেন। এখন তাঁরাও আসেননা!” কংগ্রেস জানতে চেয়েছে দাম তো অনিল আম্বানির জানিয়েছেন নিজেই। তাহলে মন্ত্রগুপ্তি লঙ্ঘনের জন‍্য তাঁর বিরুদ্ধে কি এফআইআর করবেন মোদী?

৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান কেনা হয়েছে ৫৯ কোটি টাকায়। আর দাসোর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে অনিল আম্বানি পেয়েছে ২৯,৫০০ কোটির অফসেট বরাত। তার সঙ্গে বিমান রক্ষনাবেক্ষনে ৫০ বছরের জন‍্য আরও ১লক্ষ ৫হাজার কোটির বরাত। রাফালের দাম এবং বরাতের এই অঙ্ক জানিয়েছেন অনিল আম্বানির সংস্থা। একটি বেসরকারি ব‍্যাঙ্কের নোটে সরকারের দাবি করা ‘ জাতীয় গোপন বিষয়’ রাফালের দাম এখন প্রকাশ‍্য নথি, শুক্রবার সেটি পড়ে শোনাল কংগ্রেস।

কংগ্রেস এতদিন ধরে অভিযোগ করে আসছিল, ইউপিএ শাসনকালে প্রতিটি রাফালের দাম ছিলো ৫২৬ কোটি টাকা। মোদীর জমানায় তা বেড়ে দাড়ায় ১৬৭০ কোটি টাকা। বেসরকারি আইসিআইসিআই ব‍্যাঙ্কের শাখা আইসিআইসিআই ডিরেক্টর এর ‘ম‍্যানেজমেন্ট মিট নোট’ -এ যে অঙ্ক দেখা যাচ্ছে, সেই হিসেবে ও প্রতিটি রাফালের দাম তার কাছাকাছি।

রাফালের দাম জানচ্ছেন না নরেন্দ্র মোদি সরকার। বিরোধীরা জানতে চাইলে তাদেরকে ‘দেশ বিরোধী’ তকমা দিচ্ছে বিজেপি। তাঁদের মতে নাকি দাম জানলেই নাকি চিন-পাকিস্তান ফায়দা লুটবে। তাই মুখবন্ধ খামে দাম জানানো হয়েছে শীর্ষ আদালতে।

দাম ও বরাতের এই অঙ্ক অবশ‍্য এর আগে দাসোর ২০১৬ সালের বার্ষিক রিপোর্ট, রিলায়েন্সের প্রেস বিবৃতিতে রিলায়েন্সের ইনফ্রাকচার এর বার্ষিক রিপোর্টে ও সেই তথ‍্য উঠে এসেছে। আজ বেসরকারী ব‍্যাঙ্কের বিবরণে স্পষ্ট হলো অঙ্কটি। রাহুল অবশ্য আগেই অনিল আম্বানির ৩০ হাজার কোটি টাকার অফসেট ও ১লক্ষ কোটি টাকার রক্ষনাবেক্ষনের অঙ্ক জুড়ে বলেছিলেন ” রাফাল হল মোট ১লক্ষ ৩০ হাজার কোটি টাকার লুট!”