অপছন্দের তালিকায় ইউটিউব রিওয়াইন্ড ২০১৮

দেবলীনা নন্দী, কলকাতাঃ
৭ই ডিসেম্বরে মুক্তি পায় ইউটিউব রিওয়াইন্ড২০১৮। এটি মূলত একটি মিউজিক ভিডিও যা ইউটিউবের তরফ থেকে তৈরী করা হয়। এই ভিডিওতে ফিচার করা হয় বছরের সেরা ইউটিউবার,কোনো ভাইরাল ট্রেন্ড,সে বছরের সেরা গান ইত্যাদি। মুক্তির পরেই এর ভিউজ লক্ষাধিক হয়। সাথে সাথেই এর ডিজলাইকও ছাড়িয়ে গেছে মাত্রা। ১০৬ মিলিয়ন ভিউজ এর মধ্যে
যেখানে ২ মিলিয়ন লাইক সেখানেই এর ডিজলাইক ৭.৯ মিলিয়ন। এমনকী এই ভিডিওটি চারদিনেই বিশ্বের সবচেয়ে ডিজলাইকড ভিডিওর তালিকাভুক্ত হয়েছে। এখনো বিশ্বের সবচেয়ে অপছন্দের ভিডিও হল জাস্টিন বিবারের ‘বেবি’ গানটি। ইউটিউব রিওয়াইন্ড আছে দ্বিতীয় স্থানে।কিন্তু ইউটিউব রিওয়াইন্ড এর ডিজলাইক এর সংখ্যা যে হারে বেড়ে চলেছে সেক্ষেত্রে মনে করা হচ্ছে যে আগামী দিনে তা ‘ বেবি’ কেও ছাড়িয়ে যাবে।
২০১০ সাল থেকে শুরু হয় প্রথম ইউটিউব রিওয়াইন্ড। এর পর থেকে বছরের সেরা ইউটিউবারদের নিয়ে প্রতি বছর ডিসেম্বরে মুক্তি পায় ইউটিউব রিওয়াইন্ড।২০১৬ এর আগে ইউটিউবে ভারতীয় ইউটিউবারদের দেখা যায়নি। কিন্তু ২০১৬ থেকে ভারতীয় ইউটিউব চ্যানেল আসতে শুরু করে। এবছর এই ভিডিওতে বিবি কি ভাইন্স,টেকনিক্যাল গুরুজী এবং জর্ডনিন্ডিয়ান চ্যানেলকে দেখা যায়।
এবছরের রিওয়াইন্ড এর বিষয়বস্তুু ছিল ফ্যানবেস। অর্থাৎ ফ্যানেদের মত অনুযায়ী। তা ড্রেক এর ইন মাই ফিলিংস চ্যালেঞ্জ হোক বা লিটল শার্ক,বা কে পপ,সব ই ছিল এখানে।কিন্তু ফ্যানেরা হতাশ হয় যে এ বছরের সবচেয়ে বড়ো কন্ট্রোভার্সি টি সিরিজ বনাম পিউডিপাই কে দেখানো হয়নি।এছাড়াও অনেকেরই এই ভিডিওটি অতিরঞ্জিত মনে হয়েছে। কিন্তু এই ভিডিওটি ইউটিউব ইতিহাসে একটি রেকর্ড সৃস্টি করেছে। এতো তাড়াতাড়ি এতো ডিজলাইকড হয়ে সবচেয়ে বেশী ডিজলাইকড ভিডিওর দ্বিতীয় স্থান অধিকার ইউটিউবের ইতিহাসে আগে কখনো ঘটেনি।