অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই মুখ থুবরে পড়লো ভারত।

সুমন ভুঁইয়া:- দিনটি ভারতের সাথে ছিলো না।আজ ভারতের ইতিহাস রচনা হল ঠিকই।কিন্তু ইতিহাসটা রচনা হওয়ার যথেষ্ট রসদ থাকলেও তা হলো না। এদিন দিল্লির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে যখন ভারত, আমেরিকার মুখোমুখি হলো তখন ১২৫ কোটি ভারতীয় আশায় বুক বেঁধেছিলো।কিন্তু বিশ্বকাপের অভিষেক ম্যাচে আমেরিকার বিরুদ্ধে ৩-০ ব্যবধানে হারল ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৭ দল। আয়োজক দেশ হিসেবে ভারত সরাসরি অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে খেলার ছাড়পত্র পায়। প্রথম থেকে ভারত লড়াই এ থাকে। এর মধ্যে আমেরিকা পেনাল্টি পায় এবং পেনাল্টি থেকে দলকে এগিয়ে দেয় ডস সার্জেন্ট।তার পরেও ভারত আবার খেলায় ফেরে।

615105-joshua-sargent-twitter

কিন্তু দ্বিতীয় অর্ধে খেলা শুরুর ৭মিনিটের মাথায় নিজেদের ভুলে ক্রিস ড্রাঙ্কিন দ্বিতীয় গোল করে চলে যায়।এর পরও ভারতও বেশ কিছু সুযোগ পায়।কিন্তু সুযোগকে গোলে রূপান্তর করতে পারলো না।আবার ৮৪ মিনিটের মাথায় কার্লটন দলের তৃতীয় গোলটি করে ভারতের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেয়।যার ফলস্বরূপ আমেরিকা ৩-০ গোলে ম্যাচটি পকেটে পুরে নেয়। ভারত আরও গোলে হারতে পারতো যদি না তিনকাঠির নীচে ধীরাজ থাকতো।এক কথায় ধীরাজ দুরন্ত।

615125-indvusa-twitter

তবে, আজকের খেলা থেকে একটা অনুমেয় ভারতকে বিশ্বফুটলে জায়গা করতে হলে অনেকটাই পরিশ্রম করতে হবে। যদিও তুল্য মূল্য বিচারে আমেরিকা এগিয়ে থেকে খেলা শুরু করে। তবুও ভারতীয় ফুটবলাররা একেবারে সুরক্ষিত জমি দেয়নি আমেরিকাকে। প্রথমার্ধে বেশ ভাল শুরু করেছিল ভারত। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে খেলার গতি বাড়াতেই আর টক্কর দিতে পারলো না ভারতীয় কিশোর ব্রিগেড।তবে ভারতের এই লড়াকু মনোভাবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ফুটবল বিশেষজ্ঞরা।